করোনা মহামারির ধাক্কায় যখন সংকুচিত বিশ্ব অর্থনীতি তখন সম্পদ গড়ার রেকর্ড গড়ল আইফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল। মাত্র ২১ সপ্তাহ অর্থাৎ সাড়ে ৫ মাসেরও কম সময়ের মধ্যে ১ ট্রিলিয়ন ডলার যোগ করার মাধ্যমে প্রথম মার্কিন কোম্পানি হিসেবে দুই ট্রিলিয়ন ডলার সম্পদের মালিক হল টেক জায়ান্ট অ্যাপল। প্রথম এক ট্রিলিয়ন ডলারের মালিক হতে কোম্পানিটির লেগেছিল ৪২ বছর আর এরপর মাত্র দুই বছরের মধ্যেই ছুঁয়ে ফেলল দুই ট্রিলিয়ন ডলারের মাইল ফলক। ২০১৮ সালে অ্যাপল প্রথমবারের মতো এক ট্রিলিয়ন ডলার সম্পদের মালিক হয়।

বুধবার (১৯ আগস্ট) ক্যালিফোর্নিয়া ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান অ্যাপলের শেয়ারের দাম ৪৬৮.৬৫ ডলারে উঠলেই কোম্পানিটি ২.০০৪ ট্রিলিয়ন ডলার সম্পদের মালিক হয়। আর সর্বশেষ লেনদেনে অ্যাপলের শেয়ারমূল্য ১.২ শতাংশ বেড়ে এর বাজার মূলধন দাঁড়ায় ১.৯৯৯ ট্রিলিয়ন ডলারে। ১৯৭৬ সালের ১লা এপ্রিল থেকে পথচলা শুরু করা অ্যাপলে বর্তমানে কাজ করছে ১ লাখ ৩৭ হাজার কর্মী। রয়টার্স।

অ্যাপলের শেয়ারমূল্য নিয়ে নিউইয়র্ক টাইমস বলছে, করোনা ধাক্কায় গত মার্চের মধ্যভাগেও প্রতিষ্ঠানটির সম্পদ ১ ট্রিলিয়ন ডলারের নিচে ছিল। ২৩ মার্চ, এ বছরের সর্বনিম্ন অবস্থানে পৌঁছায় মার্কিন শেয়ারবাজার। এরপরই বাজার সামলাতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয় যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ। বাজার উত্তরণে ফেডারেল রিজার্ভের নেয়া পদক্ষেপের পর থেকেই প্রযুক্তি খাতের প্রতিষ্ঠান অ্যাপল, মাইক্রোসফট, অ্যামাজন, অ্যালফাবেট ও ফেসবুকের শেয়ারের দাম বাড়তে শুরু করে। বিবিসি’র খবর, এর আগে আর একটি মাত্র প্রতিষ্ঠান দুই ট্রিলিয়ন ডলার সম্পদের মালিক হয়, সেই কোম্পানিটি হল সৌদি আরবের জ্বালানিখাতের প্রতিষ্ঠান আরামকো। গত ডিসেম্বরে দুই ট্রিলিয়নের মাইলফলক স্পর্শ করে কোম্পানিটি। অবশ্য চলতি বছরের শুরু থেকে করোনার কারণে বিশ্বব্যাপী জ্বালানির চাহিদা কমতে থাকায় সৌদির জাতীয় পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস ভিত্তিক কোম্পানি আরামকোর শেয়ারের দরও পড়তে থাকে।

করোনা মহামারিতে খুচরা দোকান বন্ধ কিংবা মার্কিন রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যেও চলতি বছর অ্যাপলের শেয়ারের দাম ৫০ শতাংশেরও বেশি বেড়েছে। মূলত, করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার পর মার্চে শেয়ারের দাম সর্বনিম্নে নামার পর থেকে এর বাজারমূল্য দ্বিগুন হল। জুলাইয়ের শেষ দিকে এসে ৫৯.৭ বিলিয়ন ডলারের রাজস্ব ও এর পণ্য ও সেবায় দুই অংকের প্রবৃদ্ধি নিয়ে চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে শক্ত অবস্থানেরই জানান দিচ্ছে এই টেক জায়ান্ট। অ্যাপলের পরেই আছে প্রযুক্তিখাতের আরেক মার্কিন প্রতিষ্ঠান অ্যামাজান। ওয়াশিংটন ভিত্তিত এই টেক জায়ান্টের বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ১.৭ ট্রিলিয়ন ডলার।