বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন নেইল ম্যাকেঞ্জি। পারিবারিক কারণ দেখিয়ে পদত্যাগ করেছেন বলে জানিয়েছেন এই প্রোটিয়া কোচ। বৃহস্পতিবার এক চিঠির মাধ্যমে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবিকে বিষয়টি জানান ম্যাকেঞ্জি।

ক্রিকইনফোকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ব্যাটসম্যান। তিনি বলেন, হ্যাঁ, আমি চাকরিটা ছেড়ে দিয়েছি। শুধুমাত্র পরিবারের সঙ্গে আরেকটু বেশি সময় দেয়ার জন্য। তবে বাংলাদেশের ওপর কোনধরণের ক্ষোভ থেকে এমন সিদ্ধান্ত যে নেননি ম্যাকেঞ্জি, সেটিও পরিষ্কার করেছেন তিনি। বলেছেন, টাইগারদের সঙ্গে কাজ করে খুব ভালো লেগেছে। বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রতি সবসময়ই একটা টান অনুভব করবো। যাদের সঙ্গে কাজ করেছি তারাও বেশ ভালো।

২০১৮ সালের জুলাইয়ে বাংলাদেশের ওয়ানডে ক্রিকেট দলের ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে যোগ দেন ম্যাকেঞ্জি। খুব দ্রুতই তিনি সফলতার দেখা পান। মূলত তামিম-মুশফিকদেরকে ‘স্কিল হিটিংয়ে’ মনোযোগী হবার পরামর্শ দেন তিনি। টাইগার ব্যাটসম্যানদের প্রধান সমস্যা ডট বল থেকে পরিত্রান পেতে প্রতিটি বলে স্ট্রাইক রোটেট করার উপায় বাতলে দিচ্ছিলেন ম্যাকেঞ্জি। টসম্যানদের দুর্বলতা খুব দ্রুতই খুঁজে বের করতে পারতেন এই প্রোটিয়া কোচ। একইসঙ্গে ব্যাটসম্যানদের পাশে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রেও ছিলেন অগ্রগণ্য। চলতি বছরের শুরুতে ‘অ্যাঙ্কর রোল’ ইস্যুতে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়া তামিম ইকবালের পাশেও দাঁড়িয়েছিলেন ম্যাকেঞ্জি। লিটন দাস এবং নাঈম শেখের ব্যাটিংয়ের উন্নতিতে তার ভূমিকাটা স্পষ্ট। এছাড়া তামিমসহ সিনিয়র ব্যাটসম্যানরাও ম্যাকেঞ্জির কাজের বেশ প্রশংসা করেছেন। তার অধীনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ ছাড়াও, আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজের ট্রফি জিতেছে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর হেড কোচ স্টিভ রোডস চাকরি হারালেও, ম্যাকেঞ্জির ওপর ভরসা রেখেছিল বিসিবি।

একবারই টেস্ট দলের ব্যাটিং কোচের ভূমিকা পালন করেছিলেন ম্যাকেঞ্জি। ভারতের বিপক্ষে গেল বছরের সেই টেস্ট সিরিজে অবশ্য বেশ বাজেভাবেই হেরেছিল বাংলাদেশ। ম্যাকেঞ্জির দায়িত্ব ছাড়ায়, শ্রীলঙ্কা সফরের আগেই নতুন কোচ নিয়োগ দিতে হবে বিসিবিকে। এরইমধ্যে শুরু হয়ে গেছে কোচ খোঁজার কার্যক্রমও। জানা গেছে, নিউজিল্যান্ডের সাবেক ব্যাটিং কোচ ক্রেইগ ম্যাকমিলানকে পেতে আগ্রহী বিসিবি।