‘আয়নাবাজি’খ্যাত অভিনেত্রী মাসুমা রহমান নাবিলা মা হতে যাচ্ছেন। স্বামী জোবাইদুল হককে সঙ্গে নিয়ে ফেসবুকে বেবি বাম্পের একটি স্থিরচিত্র প্রকাশ করেছেন এই তারকা। নাবিলা বলছেন, ‘এপ্রিলটা আমার জন্য বিশেষ মাস। এই এপ্রিলেই সবাইকে জানাতে চাই, আমাদের ঘরে আসছে নতুন অতিথি। আর সে আসবে জুলাইয়ে। সবাই নিরাপদ ও দূরত্ব মেনে চলুন।’

‘আয়নাবাজি’খ্যাত এই তারকা বলেন, ‘ছেলে না মেয়ে হবে- এ বিষয়টি আমরা এখনো পরীক্ষা করাইনি। আমার স্বামী চাচ্ছেন, এটি আমাদের জন্য সারপ্রাইজ হিসেবে আসুক। চিকিৎসক বলেছেন, জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে সন্তান পৃথিবীর আলো দেখবে। তবে জুনের শেষ সপ্তাহেও হয়তো সুখবর দিতে পারি।’ বাংলাভিশনের ‘এবং ক্লাসের বাইরে’ অনুষ্ঠান দিয়ে শোবিজে নাবিলার যাত্রা শুরু। উপস্থাপনায় পরিচিতি পেলেও নাবিলাকে আলোচনায় এনে দেয় ২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘আয়নাবাজি’ ছবিটি।

নাবিলার দাদাবাড়ি চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় হলেও তার বেড়ে ওঠা সৌদি আরবে। জন্ম সেখানেই। বাবার চাকরিসূত্রে তার কৈশোরের দিনগুলো কেটেছে জেদ্দা শহরে। ২০১৮ সালে জোবাইদুল হকের সঙ্গে পরিণয়ে আবদ্ধ হন নাবিলা। মাসুমা রহমান নাবিলা একজন বাংলাদেশি টেলিভিশন অনুষ্ঠান উপস্থাপক, মডেল এবং অভিনেত্রী। ২০০৬-এ টিভি উপস্থাপনার মাধ্যমে তিনি কর্মজীবন শুরু করেন। উপস্থাপনা, মডেলিং, টিভি নাটকের পাশাপাশি তিনি তার প্রথম চলচ্চিত্র আয়নাবাজি (২০১৬)-তে অভিনয়ের মাধ্যমে ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য দর্শকদের ভোটে তিনি ২১ এপ্রিল, ২০১৭-এ মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অনুষ্ঠানে তারকা জরিপে সেরা চলচ্চিত্র অভিনেত্রী নির্বাচিত হন। প্রথম কোন চলচ্চিত্রে অভিনয় করেই তিনি মেরিল-প্রথম পুরস্কারে জিতে নেন তিনি।

স্বামী জোবাইদুল হক রিমকে পাশে নিয়ে বেবি বাম্পের ছবি ফেইসবুকে প্রকাশ করে বৃহস্পতিবার এ সুখবর দিলেন নাবিলা। জুলাই মাসে তাদের কোলজুড়ে প্রথম সন্তানের আগমন ঘটছে বলে জানিয়ে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি। ২০১৮ সালের এপ্রিলে পেশায় ব্যাংকার রিমের সঙ্গে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন এ অভিনেত্রী। ২০০৬ সালের দিকে উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু হয় নাবিলার। ২০১৬ সালের ‘আয়নাবাজি’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় উঠে আসেন তিনি।