কোভ্যাকসিনের পর ভারতে আরও এক ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা। সেরাম ইনস্টিটিউটের হাত ধরে এসপ্তাহে ভারতে শুরু হচ্ছে অক্সফোর্ডের তৈরি ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় দফার হিউম্যান ট্রায়াল। দেশীয় ভ্যাকসিনের পরীক্ষা কতদূর এগোল তাই নিয়ে ৫ সংস্থার সঙ্গে বৈঠক করেছে বিশেষজ্ঞ কমিটি। ভ্যাকসিন সরবরাহ, উৎপাদন ও দাম নিয়ে রোডম্যাপ তৈরি।

ভারত বায়োটেক, জাইডাস ক্যাডিলার পর এবার ভ্যাকসিনের দৌড়ে পুণের সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। সংস্থা জানিয়েছে, অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির তৈরি ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার পরীক্ষা হবে ভারতে। ব্রিটেনে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির তৈরি করোনার ভ্যাকসিন ‘অ্যাসট্রা জেনেকা’-এর তৃতীয় পর্যায়ের হিউম্যান ট্রায়াল চলছে। এই ভ্যাকসিনের গুণগত মান বিচারের পর ভারতে পরীক্ষার অনুমতি মিলেছে। সেরাম ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, চলতি সপ্তাহেই ভারতে শুরু হচ্ছে অক্সফোর্ডের তৈরি করোনার ভ্যাকসিন ‘অ্যাসট্রা জেনেকা’-র হিউম্যান ট্রায়াল। ভারতে এই ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার পরীক্ষা হবে। তাই প্রথম ধাপে দেশের ১০টি কেন্দ্রে হিউম্যান ট্রায়াল করবে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে ভ্যাকসিন উৎপাদন নিয়ে চুক্তি করেছে ভারতীয় সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট।

ভ্যাকসিন উৎপাদনসহ একাধিক বিষয়ে আলোচনা করতে সোমবার বৈঠকে বসে দেশের ভ্যাকসিন বিশেষজ্ঞ কমিটি। সেখানে ছিলেন ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী সংস্থা ভারত বায়োটেক, জাইডাস ক্যাডিলা, সেরাম ইনস্টিটিউট, বায়োলজিক্যাল E ও জেনোভা বায়োফার্মাসিটিক্যালসের প্রতিনিধিরা। ভ্যাকসিন পরীক্ষার বর্তমান ফলাফল নিয়ে আলোচনা হয়। দ্রুত ভ্যাকসিন উৎপাদন, তার দাম ও সরবরাহ নিয়েও সংস্থাগুলির সঙ্গে আলোচনা করে বিশেষজ্ঞ কমিটি। বৃহস্পতিবারের মধ্যে ৫ সংস্থাকে রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে।

সূত্রের খবর, দেশের জনসংখ্যা ও চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রয়োজনে ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলিকে অগ্রিম বরাত দিতে পারে সরকার। ভ্যাকসিন কেনার ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রকের ভূমিকায় রয়েছে কেন্দ্র। তাই আলাদা করে কোনও রাজ্য ভ্যাকসিন কিনতে পারবে না। জাতীয় টিকা কর্মসূচির মাধ্যমে সমানভাবে দেশের সব জায়গায় ভ্যাকসিন পৌঁছে দেবে কেন্দ্র।