যাত্রার শুরুটা হয়েছিল সেই ২০০০ সালে। এরপর কেটে গেছে প্রায় ২১ বছর। লম্বা এ সময়ে টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশ দলের উন্নতি সে অর্থে হয়নি। মাঝে মধ্যে বিচ্ছিন্নভাবে কিছু জয় আসলেও তার সিংহভাগই দেশের মাটিতে। এ সংস্করণে খেলতে গেলে যেন ক্রিকেটের বেসিকই ভুল যান ক্রিকেটাররা। কিন্তু এরজন্য শুধু নিজেদেরকে কাঠগড়ায় তুলছেন না দলের অন্যতম সেরা তারকা সাকিব আল হাসান। দায় গণমাধ্যমকেও দিচ্ছেন এ অলরাউন্ডার।

গত দুই দশকে মোট ১২১টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। এরমধ্যে জয় পেয়েছে মাত্র ১৪টিতে। ড্রয়ের সংখ্যাও বেশি নয়। মাত্র ১৬টি। বলাবাহুল্য এর বেশিরভাগই দেশের মাটিতে। বিপরীতে হেরেছে ৯১ টেস্টে। অর্থাৎ, ৮০ শতাংশ ম্যাচই হেরেছে টাইগাররা। টেস্ট জেতার মতো দল যে এখনও হয়ে উঠতে পারেনি বাংলাদেশ, তা পরিসংখ্যানেই স্পষ্ট।

ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। তাও পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে আসেনি ক্যারিবিয়ানরা। তাদের কাছেই নাস্তানুবাদ। এমন হারের পর স্বাভাবিকভাবেই টাইগারদের পারফরম্যান্স নিয়ে হচ্ছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। কিন্তু দল জিতলে এই সমালোচনা হতো না বলে মনে করেন সাকিব। অথচ জয় পেলেও নিজেদের ভুলগুলো নিয়ে আলোচনা করাটাই গণমাধ্যমের কাছে প্রত্যাশা করেন সাকিব।

‘ক্রিকেটে কোন সিদ্ধান্তই ভুল বা ঠিক সিদ্ধান্ত হয় না। প্রতিটা সিদ্ধান্তই সব খেলোয়াড়, অধিনায়ক, টিম ম্যানেজমেন্ট সবাই মিলে নেন। জেতার কথা ভেবেই। যখন এটা ঠিক হয় না তখন আপনারা প্রশ্নটা করেন। অনেক সময় ঠিক হলেও জিনিসটা ভুল হতে পারে। সেটা আপনারা বুঝতেও পারেন না। যেটা বললাম জিতে গেলেই আপনারা এই প্রশ্নগুলা করতেন না। কিন্তু তখনো আপনাদের কাজটা ছিল প্রশ্ন করার। সেখানে আপনাদেরও অনেক বড় দায়িত্ব আছে আপনারা কি করবেন না করবেন, আপনারা কীভাবে সাংবাদিকতা করবেন। দায়িত্ব আপনাদেরও আছে।’ -সাংবাদিকদেরও কাঠগড়ায় তুলে এমনটাই বলেন সাকিব।

তবে নিজেদের ফিরে পেতে আত্মবিশ্বাসী এ অলরাউন্ডার, ‘আমরা তো কেউই প্রত্যাশা করি নাই এরকম হবে। কারণ এর আগে ওদের পুরো শক্তি দলকে আমরা সব কিছুতে হারিয়েছিলাম। প্রথম টেস্টের চারদিন পর্যন্ত সব ঠিক ছিল। পঞ্চম দিন থেকেই আমাদের খারাপের ধারাটা শুরু। দ্বিতীয় টেস্টে একটা সময় রিকোভারি করেছিলাম। কিন্তু হয়নি পরে। স্বাভাবিকভাবেই কঠিন সময়। কিন্তু আগেও কঠিন সময় এসেছে। সবাই মিলে কাজ করে এই জায়গা থেকে বের হয়ে আসা সম্ভব হয়েছে। আমি বিশ্বাস করি এবারও একসঙ্গে কাজ করে বের হয়ে আসতে পারব।’

‘সামর্থ্য আছে। এটা আমি বিশ্বাস করি। এর আগেও এরকম পরিস্থিতি এসেছে। সেখান থেকে আমরা বেরিয়ে আসতে পেরেছি। আবার দুএকটা ভাল ফলই সব কিছুর প্রেক্ষাপট বদলে দিতে পারে। কাল যদি ১৭ রান আমরা আরও বেশি করতাম এখন এইসব কথাগুলা হতো না।’ – যোগ করেন সাকিব।

The journey started in the year 2000. About 21 years have passed since then. In that long time, the Bangladesh team did not improve in Test cricket in that sense. Occasionally there are isolated victories, but most of them are on the ground. When it comes to playing in this version, it is as if the cricketers go wrong with the basics of cricket. But Shakib Al Hasan, one of the best stars of the team, is not only putting himself on the fence for this. The all-rounder is also giving responsibility to the media.

Bangladesh has played a total of 121 Test matches in the last two decades. Of these, only 14 have been won. The number of draws is also not high. Only 16. Needless to say most of it is on country soil. In contrast, they lost 91 Tests. In other words, the Tigers have lost 80 percent of their matches. It is clear from the statistics that Bangladesh has not yet become a Test winning team.

Bangladesh has been whitewashed in the Test series against West Indies at home. The Caribbean did not come with a full strength team. To them it is blasphemy. After such a rate, hair analysis is being done with the performance of the Tigers. But Shakib thinks that this criticism would not have happened if the team had won. But even if he wins, Shakib expects the media to discuss their mistakes.

‘No decision in cricket is wrong or right. Every decision is made by all the players, captains, team management. Just thinking about winning. You ask the question when it is not right. Many times the right thing can go wrong. You don’t even understand that. As I said, you would not have asked these questions if you had won. But still your job was to question. You also have a big responsibility there, what you do or do not do, how you do journalism. You also have a responsibility. -Sakib said the same to the journalists.

However, the all-rounder is confident of getting himself back, ‘We didn’t expect this to happen. Because before that we lost their full strength team in everything. All was well until four days of the first Test. From the fifth day our bad trend started. I made a time recovery in the second Test. But not later. Naturally hard times. But hard times have come before. It has been possible to get out of this place by working together. I believe we can work together again and come out. ‘

‘There is affordability. This is what I believe. This situation has happened before. We were able to get out of there. Again, a couple of good results can change the context of everything. If we had scored 16 more runs yesterday, these things would not have happened now. ‘ – Shakib added.